শুকরিয়ার সেজদা দেয়ার নিয়ম

শুকরিয়ার সেজদা বা সিজদাতুশ শোকর দেয়ার নিয়ম কি?

ইমাম আবু ইউসুফ এবং মুহাম্মদ (রহঃ) এর মতে, কেউ কোন নেয়ামত পেলে, আল্লাহতালার পক্ষ থেকে রিজিক পেলে, সন্তান এর পিতা-মাতা হলে, সম্পদের মালিক হলে, হারানো বস্তু ফিরে পেলে, পরস্পর বিদ্বেষ মিটে গেলে, রোগ-মুক্তি পেলে অথবা হারানো ব্যক্তি ফিরে আসলে কৃতজ্ঞতা প্রকাশ অর্থে আল্লাহ তায়ালাকে সিজদা দেয়া মুস্তাহাব।

এ সেজদা দেওয়ার সময় কেবলামুখী হতে হবে, আল্লাহতালার প্রশংসা করতে হবে, তাসবিহ পাঠ করতে হবে অতঃপর তাকবির দিয়ে মাথা উত্তোলন করে সেজদা সম্পন্ন করতে হবে। যেমনি ভাবে তেলাওয়াতের সেজদা দেয়া হয়।

যে নামাজের পর নফল নামাজ পড়া মাকরুহ সে সময় এই শুকরিয়ার সেজদা দেয়া মাকরুহ। এছাড়া অন্যান্য সময়ে শুকরিয়ার সেজদা দেয়া যাবে। কোন কারণ ছাড়া শুকরিয়ার সেজদা দিলে মাকরুহ হবে না। তবে প্রায় সময় নামাজের পরে দিলে মাকরূহ হবে কেননা শরীয়ত সম্পর্কে জ্ঞান না থাকা সাধারণ মানুষেরা ধারণা করবে যে এটা হয়তো সুন্নত অথবা ওয়াজিব।

ইমাম শাফি, ইমাম মালেক, ইমাম আহমদ ইবনে হাম্বল রহ: প্রমুখের মতে নামাজের জন্য যেমনি তাহারত এবং সতর ঢাকা শর্ত তেমনি শুকরিয়ার সেজদার জন্য শর্ত।

ফতোয়ায়ে হিন্দিয়া ১ম খন্ড ১৩৬ পৃষ্ঠা, তাতারখানিয়া, কুনইয়া, জাহেদী।


Comments

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *